আদালত বন্ধ রাখতে প্রধান বিচারপতির কাছে আইনজীবীদের স্মারকলিপি

করোনা মহামারি থেকে আদালত সংশ্লিষ্ট সকল স্তরের কর্মকর্তা, কর্মচারী, আইনজীবী, সহকারী, মক্কেল, নিরাপত্তাকর্মীদের জীবনের সুরক্ষায় আদালত বন্ধের দাবি জানিয়ে প্রধান বিচারপতির কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে সাধারণ আইনজীবীদের অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।

রোববার (২৬ এপ্রিল) বেলা ১১টায় সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির ৩০১ জন সদস্যের অনুমতি নিয়ে এই স্মারকলিপি প্রধান বিচারপতির কাছে জমা দেন পরিষদের সমন্বয়ক এস এম জুলফিকার আলী জুনু।

এতে বলা হয়েছে, কোভিড- ১৯-এর প্রাদুর্ভাব সমগ্র বিশ্বজুড়ে মহামারি আকার ধারণ করেছে। আমাদের প্রাণপ্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশেও এর ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা পায়নি। বর্তমানে বাংলাদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় পাঁচ হাজার এবং মৃতের সংখ্যা দেড়শোর কাছাকাছি। এ অবস্থায় দেশের আপামর জনসাধারণের জানমালের নিরাপত্তার জন্যে সবাইকে ঘরে রাখার লক্ষ্যে সরকার দেশব্যাপী ৫ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে। শুধুমাত্র মানুষের জীবন বাঁচানোর সঙ্গে সম্পৃক্ত হাতেগোনা কয়েকটি প্রতিষ্ঠান ছাড়া অধিকাংশ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
‘এ দুর্যোগময় অবস্থায় সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল গত বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে সীমিত আকারে বিচার বিভাগ খুলে দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছিলেন। যদিও সেটি শনিবার (২৫ এপ্রিল) অপর এক প্রজ্ঞাপনে সোমবার (২৭ এপ্রিল) পর্যন্ত স্থগিত করা হয়, যা আমরা আইনজীবী হিসেবে প্রতিপালন করতে বাধ্য।’

‘কিন্তু দুঃখজনক হলেও এটা অনিবার্য সত্য যে, বর্তমানে কোর্ট অঙ্গন খোলা থাকলে এর সঙ্গে সম্পৃক্ত সকল আইনজীবী, মক্কেল ও কলাকুশলীদের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যাবে। যার ফলে আইনজীবী, মক্কেল ও কলাকুশলীরা সপরিবারে মৃত্যুমুখে পতিত হতে পারে। তাই জরুরি ভিত্তিতে আমরা আইনজীবী সমাজকে করোনার ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা ও আদালত-সংশ্লিষ্ট সকল স্তরের কর্মকর্তা, কর্মচারী, আইনজীবী, সহকারী, মোয়াক্কেল, নিরাপত্তাকর্মীদের জীবন বাঁচাতে বার কাউন্সিল, সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ ও আলোচনা করে সকলের মতামত নিয়ে কোর্ট বন্ধ রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

Leave a Comment