কারাগারে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে আসামিদের মুক্তি দিতে নোটিশ

করোনার সংক্রমণ থেকে কারাবন্দীদের জীবন রক্ষায় হত্যা, ধর্ষণ, এসিড নিক্ষেপ, মাদক, দুর্নীতির অপরাধ আইনের অধীনে থাকা মামলার আসামী ব্যতীত বিচারধীন মামলার আসামীদের সরকারের নিবার্হী আদেশে মুক্তি দিতে সরকারের সংশ্লিষ্টদের লিগ্যাল নোটিশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী।

আজ বুধবার বিকেলে ইমেইলেও কুরিয়ারের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী ও আইজি প্রিজনকে এ নোটিশ পাঠিয়েছেন আইনজীবীদের সংগঠন ন্যাশনাল লইয়ার্স কাউন্সিলের চেয়ারম্যান এডভোকেট এস এম জুলফিকার আলী জুনু ।

নোটিশে বল হয়েছে, করোনা সংক্রমণ থেকে কারাবন্দীদের জীবন রক্ষায় মানবিক দিক বিবেচনায় আপনাদের সদয় অবগতি ও প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করছি। বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদ দেখে জানা গেছে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন একজন বন্দি। একই হাসপাতালে বন্দিদের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন ছয় কারারক্ষীসহ মোট ১১জন। এছাড়াও কারাগার সংশ্লিষ্ট ৬২ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

ঢামেক হাসপাতালে আক্রান্তদের সংস্পর্শে এসেছেন এমন যারা আছেন তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার জন্য বলা হয়েছে।

এছাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা আরেক কারাবন্দিও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত কারাবন্দির মাধ্যমে দায়িত্বরত কারারক্ষীদের মধ্যে ভাইরাসটি সংক্রমিত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই অবস্থায় কারাবন্দীদের বাঁচাতে বাংলাদেশ সরকারের নির্বাহী আদেশে লিগ্যাল নোটিশ প্রাপ্তীর ২৪ ঘন্টার মধ্যে মানবিক দিক বিবেচনায় হত্যা, ধর্ষণ, মাদক, এসিড নিক্ষেপ, দুর্নীতি মামালায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী ব্যতীত বিচারধীন ও স্বল্প সাজার আসামীদের সরকারের নির্বাহী আদেশে মুক্তির আবেদন জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, দেশের ৬৮ কারাগারে গাদাগাদি অবস্থায় আছে কারাবন্দিরা। এ ব্যবস্থায কারাগারে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে লঘু দণ্ড প্রাপ্ত এবং বিচারাধীন মামলার আসামিদের মুক্তি দেওয়ার জন্য আইনবিদরা দাবি জানিয়েছেন।

Leave a Comment