কুমিল্লা মহানগরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মীর উপর দুর্বৃত্তের হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কুমিল্লা মহানগরের ২২নং ওয়ার্ড আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের কর্মী জিয়াউর রহমানের উপর প্রকাশ্য দিবালোকে হামলা চালিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত। শুক্রবার সন্ধ্যায় ২২নং ওয়ার্ডের দৈয়ারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসময় জিয়াউর রহমানকে ব্যাপক নির্যাতন চালানো হয় জনসম্মুখে। হামলার শিকার জিয়াউর রহমান জানান, দৈয়ারা এলাকার মোঃ আলাউদ্দিনের একটি নির্মাণাধীন বাড়ির দেখভাল করতেন তিনি। বাড়িটি নির্মাণের প্রারম্ভে দৈয়ারা এলাকার রিপন নামক ২জন, আল আমিন, রনি এবং বাসার নামের সিন্ডিকেট তাদের কাছ থেকে মোটা অংকটা চাঁদা দাবি করে। সেই চাঁদা না দেওয়ায় একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে আসছে তারা। তারই অংশ হিসেবে গত ২৪ এপ্রিল দিবাগত রাতে নির্মাণাধীন বাড়িটির নির্মাণ কাজে ব্যবহার করার জন্য ক্রয় করা সকল বৈদ্যুতিক তার চুরি হয়ে যায়। পরে এ বিষয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন বাড়িটির মালিক আলাউদ্দীন। থানায় অভিযোগের পর পুলিশ ঘটনাস্থলে আসি আসি করে,৩/৪ দিন পার হয়ে গেলেও আসেনি। পরে এই বিষয়টি ২২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলমকে বলেন জিয়াউর রহমান। এসময় তার চুরির সঙ্গে সেই ৪ বখাটের সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে আ’লীগ নেতা খোরশেদ আলমকে জানায় জিয়াউর রহমান। তাকে জানানোর আধঘন্টা পরই সেই ৪ বখাটে ঘটনাস্থলে লাঠিসোটা নিয়ে জিয়াউর রহমানের উপর আক্রমণ করে। এসময় স্থানীয় লোকজন তাদের বাধা দিয়ে আটকে রাখলেও শোর চিৎকার করে জিয়াউর রহমানকে গালমন্দসহ মৃত্যুর হুমকিও দেয় তারা। পরে শুক্রবার জিয়াউর রহমান সদর দক্ষিণ থানায় গিয়ে জিডি করলে, তার জের ধরে আবারও আক্রমণ করা হয় জুমার নামাজের পর। আবারও লোকজন বাধা দিয়ে আটকে রাখে ৪ বখাটেকে। পরে সন্ধ্যায় ইফতারের একটু আগে জিয়াউর রহমান ইফতার করতে বাসায় আসার পথিমধ্যে ওঁৎ পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা জিয়াউর রহমানের উপর লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা করে। এসময় স্থানীয় কয়েকজন লোকের সামনেই তার উপর নির্যাতন চালায় দুর্বৃত্তরা। কোনোরকম ভাবে জিয়াউর রহমান দৌড়ে বাসায় এসে প্রাণ বাঁচায়। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান জিয়াউর রহমান।

Leave a Comment