চান্দিনায় ডাকাতের ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী নিহত: এসআই শাহিনের সাহসীকতায় ঘটনাস্থলেই হত্যাকারী আটক


নিজস্ব প্রতিবেদক;
কুমিল্লার চান্দিনা মহাসড়কে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে তোফাজ্জল হোসেন (৩৫) নামে এক কাপড় ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে নিহত তোফাজ্জলের শ্যালক ফয়সাল রহমান (২৮)।
ছিনতাই কালে পুলিশের এসআই শাহিন কাদির সাহসিকতার সঙ্গে এক ডাকাতকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করেন। পরে পালিয়ে যাওয়া অন্য এক ডাকাতকে অভিযান চালিয়ে আটক করে পুলিশ।
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার গোবিন্দপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত পিকআপ ও ছিনতাইকারী চক্রের ২ সদস্য গাড়ি চালক ও সহযোগী চালক কে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে ২টি ধারালো ছুরি ও ৩টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত তোফাজ্জল হোসেন (৩৫) সিরাজগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার তেলকুপি গ্রামের আবু বক্কর ছিদ্দিক এর ছেলে। আহত ফয়সাল একই উপজেলার রঘুরগাতি গ্রামের লুৎফর রহমান এর ছেলে। নিহত ও আহত দুজন সম্পর্কে শ্যালক-দুলাভাই।

আটক ছিনতাইকারীরা হলো- কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার ভানী গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে সুজন (২৫) ও একই জেলার আদর্শ সদর উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে রুবেল(৩৫)।

পুলিশ জানায়- তোফাজ্জল হোসেন ও ফয়সাল রহমান সিরাজগঞ্জ থেকে কাপড় এনে কুমিল্লা লাকসামের হকার্স মার্কেটে কাপড় বিক্রি করতেন। ঘটনার দিন অনেকদিন পর বাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার সারাদিন বেচাকেনা শেষে রাতে বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। কুমিল্লা পদুয়ার বাজার এলাকায় রাত প্রায় সোয়া ১২টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে সিরাজগঞ্জ বা ঢাকার কোনো বাস পায়নি তারা। এরপর প্রায় সারে ১২টায় একটি পিকআপ তাদের সামনে এসে দাঁড়ায়। এ সময় পিকআপে থাকা হেলপার তাদের কাছে জানতে চায় ঢাকায় যাবে কিনা তারা। গভীর রাত বাস ও পাবে না তাই উপায়ন্তু না পেয়ে পিকাপে উঠে তারা দুজন। এ সময় পিকআপে গাড়িচালক, সহযোগী চালকসহ আপর একজন ছিলো গাড়িতে।
পিকাপ টি মহাসড়কের চান্দিনার গোবিন্দপুর এলাকায় পৌঁছামাত্র গাড়ি থামিয়ে চালক ও সহযোগীরা তাদেরকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে যা কিছু আছে বের করে দেওয়ার জন্য বলে। এ সময় শ্যালক ও দুলাভাইয়ের সাথে চালক হেলপার বেশে থাকা ছিনতাইকারীদের সাথে ধস্তাধস্তি শুরু হয়। গাড়ি চালক, সহকারী ও হেলপার বেশী ছিনতাইকারীরা তাদেরকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করতে থাকে ।
ওই দুই কাপড় ব্যবসায়ীকে উপর্যুপুরী ছুরিকাঘাত করে গাড়ি থেকে নামানোর সময় তারা আর্ত চিৎকার শুরু করে। কুমিল্লার ছত্রখিল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এস.আই) শাহিন কাদির বিশেষ কাজে দাউদকান্দি যাওয়ার পথে ওই ঘটনার মুখোমুখি পড়েন। আহতদের চিৎকার চেচামেচি শুনে গাড়ি থেকে নেমে ঘটনা আচ করেতে পেরে এস.আই শাহিন কাদির ছুরি হাতে থাকা এক ডাকাতকে সাহসীকতার সাথে জাপটে ধরেন। ডাকাতকে নিরস্ত্র করে হেন্ডকাপ লাগিয়ে চান্দিনা থানা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশের উপস্থিতি দেখে বাকি দুই ছিনতাইকারী তৎক্ষনাৎ পিকআপ ফেলে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে চান্দিনা থানা পুলিশের সহায়তায় আহত শ্যালক ও দুলাভাইকে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তোফাজ্জল কে মৃত ঘোষণা করেন।
অপরদিকে পলাতক ডাকাতদের ধরতে চান্দিনা থানা পুলিশের একটি টিম অভিযান শুরু করে। পরে গোবিন্দপুর গ্রামের ভেতর থেকে অপর এক ছিনতাইকারীকে আটক করতে সক্ষম হয় পুলিশ।
চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মো. আবুল ফয়সল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন- নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে এ রাতেই দেবপুর ফাঁড়ি পুলিশের আরেক চৌকস অফিসার এসআই নন্দন ও সঙ্গীয় ফোর্সের অভিযানে পালাতক আরো একজন কে আটক করেন বলে জানা গেছে । আটক ডাকাতের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় গত তিন দিন আগে কুমিল্লা সিলেট মহাসড়কের পশ্চিমশিং এলাকা থেকে অজ্ঞাত মরোদেহ উদ্ধার হওয়া ব্যাক্তির মোবাইল ফোন সহ ডাকাতির অন্যান্য সরঞ্জাম।

Leave a Comment