জনপ্রিয়তাই কাল হলো ডাক্তার জোবায়েরের

স্টাফ রিপোর্টারঃ জনপ্রিয়তাই কাল হলো ডাক্তার জোবায়েরের।

একজন সৎ, মানবসেবী ও জনপ্রিয় চিকিৎসক তিনি। এই মহামারীতেও সে মানুষকে পুরোদমে সেবা দিয়ে গেছে। গরীব, অসহায় রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসাসহ আর্থিক সহায়তা করা তার নৈমিত্তিক কাজ ছিল।
কুমিল্লার ছেলে হয়েও থেকে গেছে সিলেটের এক পশ্চাৎপদ এলাকায়।

যেখানে চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসার স্বর্গরাজ্য সাজিয়ে তুলেছিলেন কিছু অসাধু লোক। আর ডাক্তার জোবায়েরের চিকিৎসা, কাউনসেলিং, লেখালেখিতে তাদের ব্যবসায় কিছুটা খরা পড়ে তাদের। তাই তার পিছনে লাগে। ২০১৮ সালে একবার তাকে ফাঁসানোর চেস্টা করে ব্যর্থ হয়। কিন্তু চক্রান্ত তারা থেমে থাকেনি। ভিন্ন কৌশলে মহিলা রোগী পাঠিয়ে নতুন চক্রান্ত করে।

ডা. জোবায়ের তাকে মেডিকেল নিয়ম মেনেই তার এটেনডেন্টের উপস্থিতিতে পরীক্ষা করে ব্যবস্থাপত্র দিয়ে বিদায় করে দেয়। রোগী চলে যাওয়ার ২ দুই ঘন্টা পর ওই চক্রান্তকারীরা তার চেম্বার ঘেরাও করে। ডাক্তার জোবায়েরের বিরুদ্ধ ওই মহিলার শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেন তারা।

ব্যস,ধর রে,মার রে। হয়ে গেল!!”
যে মানুষগুলোকে জোবায়ের এতগুলো বছর সেবা দিয়ে গেলো সূর্য ডুবতেই সেই মানুষগুলো জোবায়ের চেম্বার ভাঙ্গলো, তাকে আহত করলো। শেষ পর্যন্ত তাকে শর্ত দিলো, সিলেট ছেড়ে দেয়ার। না ছাড়লে হবে মামলা।

কিন্তু জোবায়ের জানে এই অসত্য মোকাবেলা না করে সিলেট ছাড়া মানে, সারাজীবনের জন্য হেরে যাওয়া। তাই সে ওখানে থেকেই সত্যের মুখোমুখি হতে চায়।

Leave a Comment