টাঙ্গুয়ার হাওরে আফালের তান্ডবে বিধস্ত অসহায় মানুষের বসতবাড়ি।

শাকেল হাসান, তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
করোনার প্রছন্ড ঝড়ে বিশ্ব যখন নাজেহাল-ঠিক তারই ভিতরে হঠাৎ করে বৈশিক উঞ্চায়নের প্রভাবে টাঙ্গুয়ার হাওরের বন্যা ও হাওরের বুকে আঁচড়ে পড়ছে ঢেউ।ভেঙ্গে গেছ শতাধিক বাড়ি।সরকারী সহযোগিতা না পেলে খাদ্য ও বাসস্থানের সমস্যা হবে বলে জানান অধিকাংশ অসহায় মানুষ।একের পর এক প্রাকৃতিক দূর্যোগে মাথায় হাত উঠেছে হাওরপারের পিছিয়ে পরা জনগোষ্ঠীর। টাঙ্গুয়ার হাওর পারের কয়েকটি গ্রাম,নেই কোন উন্নত যোগাযোগ ব্যাবস্থা, নেই কোন ভাল কর্মস্থল, নেই ভাল খাদ্যব্যাবস্থা ও বাসস্থান, যেন একশ বছর পিছিয়ে আছে হাওর পারের এই অবহেলিত জনগোষ্ঠী। টাঙ্গুয়ার হাওর পারের মানুষ অধিকাংশ জেলে,তারা মাছ ধরে পরিবার চালায়।কিন্তু বর্তমানে মাছ ধরতেও পারছে না। করোনার ঝুকি সামাল দেবার আগেই বন্যা ঝড়-বৃষ্টি আফালের আঘাত।আর তাতেই যেন নিঃস হতে বসেছে টাঙ্গুয়ার হাওর পারের মানুষ।টাঙ্গুয়ার হাওর পারে বিকল্প কোন কর্মসংস্থান না থাকায় মাছ ধরা বেছে নিয়েছ এই অঞ্চলের মানুষ।কিন্তু একের পর এক প্রাকৃতিক দূর্যোগের ফলে ঘড়-বাড়ি ভেঙ্গে ক্ষতির মুখে পড়েছে এই নিম্ন আয়ের মানুষগুলো।যেখানে দুবেলা খেতে পারছে না কী করে ঘড়-বাড়ি ঠিক করবে। দূর্যোগের ফলে নিঃস এসব জেলেরা।একমাত্র ভরসা হয়ে দাড়িয়েছে সরকার। সরকারী সহযোগীতা পেলে হয়তো এ ক্ষতি কিছুটা কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবে প্রান্তিক জেলেরা।

Leave a Comment