প্রসঙ্গ লকডাউনঃ কার সাথে এই লুকোচুরি

কামরুজ্জামান জানিঃ মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারনে সারাদেশে বিভিন্ন এলাকায় জোন ভিত্তিক লকডাউন চলছে।

সরকারের নির্দেশনায় স্থানীয় জেলা, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, সেনাবাহিনী, র্যার, বিজিবি, জনপ্রতিনিধি, আনসার ও সেচ্ছাসেবী সংগঠন লকডাউন বাস্তবায়নে কাজ করছে।

মানুষকে ঘরে রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করেও কিছু কিছু এলাকায় সেটা ব্যর্থ হতে দেখা গেছে। তবুও নানান অজুহাতে মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছে।

রাজধানীতে কিছু মানুষ গভীর রাতে সেচ্ছাসেবীদে কল করে কোক খেতে চাওয়া কিংবা ফেয়ার এন্ড লাভলী ও সেম্পু এনে দিতে বলা, এটা কেমন সভ্যতা আমার বুঝে আসেনা।

গত সোমবার কুমিল্লা মহানগরীতে লকডাউন বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন গলির মুখ বেড়া দেয়া হলে সেটি রাতের আঁধারে চুরি হয়ে যায়।

এদিকে কুমিল্লার বরুড়ার বিভিন্ন বাজারে প্রশাসনের দৃষ্টি এড়িয়ে চোর পুলিশ খেলার মতো কিছু দোকান খোলা রাখতে দেখা গেছে। উপজেলা প্রশাসন বরুড়া বাজার সহ কয়েকটি বাজারে ঝটিকা অভিযান পরিচালনা করে কয়েকজনকে জরিমানা ও করেছে।

একবার কি আমরা ভেবে দেখেছি? এই লুকোচুরি খেলা কার সার্থে? প্রশাসন বা পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে আমরা আসলে নিজেকেই ঝুঁকির মধ্যে ফেলছি।

অনেকে হয়তো বলতে পারেন লকডাউনে ঘরে বসে থেকে খাবো কি? আপনার সাথে একমত হয়েই বলছি, এ ক’টাদিন কষ্ট করে হলেও আগে একটু সুস্থ থাকি।

আপনি বা আমি ঘোরাঘুরি করলে ইউএনও, ওসি, মেয়রের কিছুই হবেনা। আপনি সংক্রমিত হলে আপনার পরিবার কষ্ট পাবে। বিশ্বাস করেন ১৪ দিন কোয়ারান্টাইন বা আইসোলেশনে থাকার যে মানসিক অশান্তি সেটা এখন বুঝতে পারছেননা। এ যেনো নিজের ঘরে এক জেলখানা। জেলখানায় ও মানুষ একে অন্যের সাথে মিশতে পারে, হাত মিলাতে পারে, কাছে আসতে পারে। এখানে সেটাও পারবেননা। আপনার সামনে স্ত্রী-সন্তান, পরিবারের লোকজন থাকবে, কিন্তু কেউ কাছে আসবেনা বা আসতেও পারবেনা। ইচ্ছে করলে আপনিও তাদের কাছে যেতে পারবেননা। আল্লাহ না করুক আরও ভয়াবহ হলেতো কথাই নেই। আক্রান্ত কোনো রোগীকে চিকিৎসার জন্য ঠিকমতো অক্সিজেন, আইসিইউ ও পাওয়া যায়না। তার ছেয়ে এইতো ভালো ১৪ দিন কষ্ট করে পরিবারের সবার সাথে ঘরে থাকি। এর পর আমরা সবার সাথে মিলিত হই। একদিন এই মহামারি চলে চলে যাবে। আমরা আবার সাভাবিক জীবনে ফিরে আসবো। বাজারে যাবো, চা খাবো, আড্ডা মারবো। পৃথিবীটা একদিন সুস্থ হবেই ইনশাআল্লাহ। আসুন সে পর্যন্ত আমরা অযথা বাজারে ঘোরাঘুরি পরিহার করি। সকলে ভালো থাকি। একটা সুন্দর আগামী দিনের প্রত্যাশা করি।

লেখকঃ কামরুজ্জামান জানি
সম্পাদক ও প্রকাশক
মুক্তির লড়াই। সম্পাদক আলোকিত দেশ ২৪ডট কম।

Leave a Comment