রেপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট দিয়ে পরীক্ষা শুরু ত্রিপুরায়

আগরতলা প্রতিনিধি: ত্রিপুরায় করোনা স্পর্শকাতর এলাকায় আজ রেপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট দিয়ে পরীক্ষা হয়েছে। উদয়পুর, সাতনালা এবং দামছড়া থেকে প্রায় ৬০০ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে এই তথ্য দিয়েছেন মন্ত্রী রতনলাল নাথ। তিনি জানান, ত্রিপুরায় করোনা আক্রান্ত দ্বিতীয় রোগী সুস্থ হয়ে উঠছেন। আজ তার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

প্রসঙ্গত, ত্রিপুরায় প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী উদয়পুরের বাসিন্দা এবং দ্বিতীয় রোগী টিএসআর জওয়ান সাতনালা এবং দামছড়া ক্যাম্পে গিয়েছিলেন। তাই ওই তিনটি স্থানকে ত্রিপুরায় করোনা স্পর্শকাতর এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। করোনা আক্রান্ত রোগী যেখানে ছিলেন তার ১ কিমি-এর মধ্যে সকলের রেপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট দিয়ে পরীক্ষা করা হবে।

এ-বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ত্রিপুরায় ৩,৮৪০টি রেপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট এসেছে। তার মধ্যে ৩,৭০০টি কিট বিভিন্ন জেলায় পাঠানো হয়েছে। তাঁর কথায়, সারা ত্রিপুরায় ১৫০টি নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্র খোলা হয়েছে। তাতে, ল্যাব টেকনিশিয়ান এবং মেডিক্যাল অফিসার সহ ৩৩০ জন স্বাস্থ্যকর্মীর নিযুক্তি হয়েছে। তাঁর দাবি, ওই স্বাস্থ্য কর্মীরাই রেপিড অ্যান্টিবডি টেস্ট কিট দিয়ে পরীক্ষা করবেন।

এদিন তিনি আরও জানান, ত্রিপুরায় আশাকর্মীরা গত ১০ দিনে ৩,২০০ জন ইনফ্লুয়েঞ্জা এবং শ্বাসকষ্টজনিত রোগী চিহ্নিত করেছেন। তাঁদের সকলের পরীক্ষা করা হবে।

Leave a Comment