হোমনায় পৌর মেয়রের ত্রান বিতরন অব্যাহত

হোমনা প্রতিনিধিঃ
করোনা মহামারীর কারনে সরকারী বেসরকারী ও ব্যাক্তিগত ত্রান প্রদান অব্যাহত রয়েছে। সরকারী ত্রানের পাশাপাশি ব্যাক্তিগত সহযোগিতা দিয়ে উপজেলা,পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড বাসীর সেবা করে যাচ্ছে জনপ্রতিনিধি গন। তাদেরই একজন কুমিল্লা হোমনা উপজেলা অাওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও কেন্দ্রীয় অাওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-অাইন সম্পাদক ও হোমনা পৌরসভার সফল মেয়র এডভোকেট নজরুল ইসলাম। যিনি সরকারী সহায়তা সঠিকভাবে বন্টনের পরও তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রীর পাশাপাশি নগদ অর্থ, মাস্ক,হেন্ড সেনিটাইজার, সাবান বিতরন করছেন। পৌরসভা সূত্রে জানা যায়,করোনা মহামারী অাকার ধারন করার পর জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে পৌরসভার মেয়রের মাধ্যমে প্রথমে অসহায় ১০০ টি পরিবারের জন্য ১টন চাউল বরাদ্ধ হয়,তারপর জেলা প্রশাসকের ত্রান তহবিল থেকে ২০ প্যাকেট(প্রতি প্যাকে ১০ কেজি চাউল,ডাল,তেল,অালু),,উপজেলা প্রশাসন হতে কর্মহীনদের জন্য ২ টন যা ২০০ পরিবারের মাঝে বন্টন করা হয়,অাবার ২ টন যা ১০ কেজি করে ২০০ পরিবারের মাঝে বন্টন করা হয়,৩য় ধাপে ৩ টন যা ৩০০ পরিবারের মাঝে বন্টন করা হয়, এভাবে কয়েক ধাপে ১০ কেজি করে মোট ১৩২০ পরিবারের মাঝে সরকারী ত্রান সহায়তা পৌছে দেয়া হয়েছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে। তাছারাও ১৪ টি শিশু খাদ্য এবং ১৮ টি প্যাকেট ঝাড়ুদার দের মাঝে দেয়া হয়েছে।এছারা হোমনা পৌর মেয়র এডভোকেট নজরুল ইসলাম তার ব্যাক্তিগত উদ্যেগে ১৫০০ পরিবারের মাঝে চাউল, অাটা,ডাল,অালু,সাবান প্রদান করছেনঃ।এছারাও ওএমএস এর মাধ্যমে ১২০০ পরিবারের মাঝে ১০ টাকা কেজি চাউল প্রদান করা হয়,অারো ৬শত পরিবারের মাঝে ওএমএস এর চাউল প্রদান করা হবে। খুব শীগ্রই পৌরসভার জন্য স্পেশাল বরাদ্দ হতে ৯৫০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেয়া হবে।এছাড়া তিনি সরকারী ও ব্যাক্তিগত সহায়াতা সিএনজি,রিক্সা,অটো ড্রাইভার, শ্রীমদ্দির বাশি কারিগর দের মাঝে ও বিলি করেন। অসহায় যারাই তাকে খাদ্য সহায়তা চেয়ে ফোন দিচ্ছেন তাদের ঘরে খাবার পৌছে দিচ্ছেন।এ প্রক্রিয়া মহামারী শেষ না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেও তিনি জানান।এছাড়া তিনি সচেতনতার অংশ হিসেবে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য এলাকার তরুন শিক্ষিত যুবকদের নিয়ে ও পৌরসভার কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের নিয়ে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তিনি সচেতনতার অংশ হিসেবে ৩ হাজার মাস্ক,স্যানিটাইজার বিতরন করেন। পৌর এলাকায় জীবানুনাষক স্প্রে ছিটানো হয় এবং নয় ওয়ার্ড,উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ও হোমনা থানাকে স্প্রে মেশিন ব্লিচিং পাউডার সহ প্রদান করেন। তিনি তার নেয়া বিভিন্ন প্রদক্ষেপ নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় ও করেন।
এ বিষয়ে মেয়র এডভোকেট নজরুল ইসলাম জানান,সরকারী ত্রান সহায়তা যেন সঠিকভাবে বন্টন হয় এজন্য সকল কাউন্সিলর ও এলাকার মুরব্বীদের নিয়ে তালিকা করে প্রকৃত অসহায়দের মাঝে ত্রান সামগ্রী পৌছে দিয়েছি।মসজিদের ইমামদের কে ও পৌরসভা হতে খাদ্য সামগ্রী উপহার স্বরুপ দেয়া হয়েছে। এছাড়া অামার ব্যাক্তিগত তহবিল হতে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করি।এ প্রক্রিয়া মহামারী শেষ না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। তিনি এ মহামারীতে দিন রাত জনগনকে ঘরে থাকার জন্য ও সরকারী সহায়তা জনগনের মাঝে পৌছে দিতে কাজ করে যাওয়ায় কুমিল্লা-২ (হোমনা-তিতাস) এর সংসদ সদস্য সেলিমা অাহমাদ মেরী,কুমিল্লার সুযোগ্য জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার,হোমনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ প্রশাসন ও অাইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।

Leave a Comment